পালং শাকের ১০ স্বাস্থ্য উপকারিতা

পালং শাকের স্বাস্থ্য উপকারিতা

পালং শাকের ১০ স্বাস্থ্য উপকারিতা:


পালং শাকের পাতা সবুজ ভিটামিন এবং খনিজ পদার্থে ভরা। পালং শাক একটি সুপারফুড। স্বল্প  পরিসরে এটি প্রচুর পরিমাণে পুষ্টির যোগান দেয়। পালং শাক ত্বক, চুল এবং হাড়ের স্বাস্থ্যের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। এটি প্রোটিন, আয়রন, ভিটামিন এবং খনিজ সরবরাহ করে।

১. খাদ্য হজমে সহায়তা করে : গ্লাইকোগ্লিসারো লিপিড উদ্ভিদের প্রাথমিক অণু এবং পালং শাকে প্রচুর পরিমাণে পাওয়া যায়। গ্লাইকোগ্লিসারোলিপিডস হজমজনিত ক্ষতি থেকে পাচনতন্ত্রের আস্তরণের সুরক্ষা দেয়। পালং শাকে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার থাকে, যা খাদ্য ভেঙে ফেলতে সহায়তা করে এবং আপনার পাচনতন্ত্রকে সচল রাখে।

২. রক্ত সঞ্চালন: পালং শাকে ভিটামিন K আছে। পালং শাক আামাদের দৈনিক চাহিদার ৮৭% যোগান দেয়, যা স্বাস্থ্যকর রক্ত ​​সংবহন করে। ভিটামিন K প্রোটিনের ভাঙার জন্যও কার্যকর এবং হাড়কে অস্টিওপরোসিস থেকে রক্ষা করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।
পালং শাকের ১০ স্বাস্থ্য উপকারিতা
৩. দৃষ্টি উন্নতি করে: আপনার দৈনিক ভিটামিন-A এর  প্রয়োজন পালং শাক পূরণ করে। যা আপনার ক্লান্ত চোখের জন্য সুসংবাদ। বিটা ক্যারোটিন হ'ল ভিটামিন এ এর ​​রূপ যা পালং শাকের মতো গাছগুলিতে পাওয়া যায়। এটি কোষের বৃদ্ধি এবং ভাল দৃষ্টি বাড়ায়। পালংশাকের ফাইটো কেমিক্যালগুলি ম্যাকুলার অবক্ষয় এবং ছানি কমানোর ক্ষেত্রেও সহায়তা করে।

৪. ক্যান্সার প্রতিরোধ করে: পালং শাকে এক ডজনেরও বেশি বিভিন্ন ফ্ল্যাভোনয়েড যৌগ রয়েছে যা এন্টি-ইনফ্ল্যামেটরি বৈশিষ্ট্য এবং ক্যান্সার বিরোধী উপাদান তৈরি করে। পালংশাক সফলভাবে মানুষের পাকস্থলীর ক্যান্সার কোষগুলির বিভাজনের গতিকে ধীর করে এবং ত্বকের ক্যান্সারের ঝুঁকি হ্রাস করে।

৫. আয়রন সমৃদ্ধ: পালং শাকে প্রচুর পরিমানে আয়রন আছে। এজন্য নিরামিষাশীদের স্বাস্থ্যকর রক্ত ​​এবং লোহিত রক্ত ​​কণিকা উৎপাদনের জন্য প্রচুর শাক খাওয়ার উত্সাহ দেওয়া হয়।

৬. শক্তিশালীকরণ: এই শাক সবুজ ম্যাগনেসিয়াম এবং পটাসিয়াম সমৃদ্ধ। দুটি পুষ্টি যা একত্রিত হয়ে শক্তি উৎপাদন করে এবং স্নায়ু এবং পেশীগুলির ক্রিয়াকলাপকে নিয়ন্ত্রণ করে।

৭. মস্তিষ্কের খাদ্য: শাকসব্জী খাওয়া মস্তিষ্কের কার্যকারিতা বৃদ্বি করে। একটি গবেষণায় দেখা গেছে যে দিনে একবার পালং শাক খাওয়া ১১ বছর অবধি মানসিক অবক্ষয়কে থামিয়ে দেয় এবং স্মৃতিভ্রংশতা দূরে রাখতে সহায়তা করে।

৮. পেশীর শক্তি বাড়ায়: পালংশাক ওজন হ্রাসকারী ডায়েটের একটি প্রধান উপাদান । পালং শাকের মধ্যে পাওয়া নাইট্রেটগুলি পেশীগুলিতে প্রোটিনের উত্পাদন বাড়ায়, এগুলি আরও শক্তিশালী করে তোলে।

৯. ওজন হ্রাস: পালং শাক পুষ্টিতে ভরা এবং ক্যালোরি কম থাকে। এটি স্বাস্থ্যকর থাকার ও ওজন হ্রাস করার একটি আদর্শ উপায় ।

১০. হাঁপানি রোধ করে: যদি আপনার হাঁপানির ঝুঁকি থাকে বা শ্বাস নিতে সমস্যা হয় তবে আপনার ডায়েটে পালং শাক অন্তর্ভুক্ত করুন। পালংশাকে বিটা ক্যারোটিন, ভিটামিন সি, ভিটামিন ই, পটাসিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়াম অ্যান্টি-অ্যাজমাটিক বৈশিষ্ট্য রয়েছে।

No comments:

Post a Comment